Apan Desh | আপন দেশ

ব্যাংকে একমাসে ৩৪ কোটি টাকা আমানত প্রত্যাহার করেছে শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:১২, ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

আপডেট: ১৮:১৩, ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

ব্যাংকে একমাসে ৩৪ কোটি টাকা আমানত প্রত্যাহার করেছে শিক্ষার্থীরা

ছবি : সংগৃহীত

ডলার সংকট ও মূল্যস্ফীতির উর্ধ্বগতি। চলছে বিশ্ব মন্দা। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। অর্থ সংকটের নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে স্কুল ব্যাংকিংয়ে। এবার হাত পড়েছে শিক্ষার্থীদের আমানতের ওপর। আমানতের পরিমাণ দ্রুত গতিতে কমছে। এক মাসে আমানত কমেছে ৩৪ কোটি টাকা। তবে হিসাব খোলার প্রবণতা বেড়েছে। 

গত বছরের শুরু থেকেই দেশে ডলার সংকট চলছিলো। একইসঙ্গে কমতে থাকে রেমিট্যান্স ও রফতানি আয়। বাজার নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ ব্যাংক ধারাবাহিকভাবে ডলার বিক্রি করছে। এতে ব্যাপকহারে চাপ বাড়ছে রিজার্ভে। একইসঙ্গে দেশের অর্থনীতিতে মূল্যস্ফীতির ব্যাপক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। শিক্ষার্থীদের অধিকাংশ পরিবার ভুগছে আর্থিক সংকটে। ফলে স্কুল ব্যাংকিংয়ে আমানতের পরিমাণ কয়েক মাস ধরে কমছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, বিদায়ী বছর ২০২২ সালের নভেম্বর মাস শেষে শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবের মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২৪৪ কোটি টাকা। এর আগের মাসের তুলনায় আমানত কমেছে ৩৪ কোটি টাকা। অক্টোবর মাসে শিক্ষার্থীদের হিসাবে ২ হাজার ২৭৮ কোটি টাকার আমানত ছিলো।

খু‌দে শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়ে উৎসাহিত করতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উদ্যোগে চালু হয়েছিল স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম। ২০১০ সালে স্কুল ব্যাংকিং কর্মসূচীর পুনঃপ্রবর্তন করা হয়। এতে বেশ সফলতা পায় আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। তবে অতিরিক্ত আয়কর কর্তন, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাব ও আমানতের পরিমাণ কিছুটা আসছে। 

২০১০ সালে স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু হলেও শিক্ষার্থীরা টাকা জমা রাখার সুযোগ পায় ২০১১ সাল থেকে। প্রথম বছরে ২৯ হাজার ৮০টি স্কুল ব্যাংকিং হিসাব খোলা হয়। এর পরের বছর ২০১২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত স্কুল ব্যাংকিংয়ের আওতায় ব্যাংকগুলোতে ১ লাখ ৩২ হাজার ৫৩৭টি হিসাব খোলা হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, নভেম্বর শেষে মোট স্কুল ব্যাংকিং হিসাবের সংখ্যা ৩১ লাখ ৯৩ হাজার ১৭১টি। এর মধ্যে ১৫ লাখ ৯২ হাজার ২৩৫টি হিসাব শহরাঞ্চলে এবং ১৬ লাখ ৯৩৬টি হিসাব গ্রামাঞ্চলে খোলা হয়েছে।

চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে ব্যাংকে শিক্ষার্থীদের হিসাব ছিলো ৩১ লাখ ৮৯ হাজার ৬০৬টি। আগস্টে এ ধরনের হিসাব খোলা হয় ৩১ লাখ ৮২ হাজার ৬৬১টি। এরপরে সেপ্টেম্বরে এসে স্কুল ব্যাংকিংয়ের হিসাবের পরিমাণ আরও কমে দাড়ায় ৩১ লাখ ৮১ হাজার ৮৬০টি। পরের মাস অক্টোবরে হিসাবের সংখ্যা দাড়ায় ৩১ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭১টি। এর আগে ২০২১ সালের ডিসেম্বর শেষে স্কুল ব্যাংকিংয়ে ২৮ লাখ ২৫ হাজার ৯৯২ শিক্ষার্থীর হিসাব খোলা হয়েছিলো। এ সময় আমানতের পরিমাণ ছিলো ২ হাজার ২১৬ কোটি টাকা।

আপন দেশ ডটকম/ এবি

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়