Apan Desh | আপন দেশ

এবার ঢাবির মেয়েছের বিরুদ্ধে ছেলেদের গুরুতর অভিযোগ, ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৫:২৩, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

এবার ঢাবির মেয়েছের বিরুদ্ধে ছেলেদের গুরুতর অভিযোগ, ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন

ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের নারী শিক্ষার্থী কর্তৃক ছেলে শিক্ষার্থীদের বুলিং ও হেনস্তা, শিক্ষার্থী উপদেষ্টা কর্তৃক পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণের বিচার না পাওয়ায় প্রতিবাদে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে বিভাগের ছেলে শিক্ষার্থীরা। তারা  লিখিত অভিযোগও দিয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টায় এ কর্মসূচি শুরু করে বিভাগে তালা দেয় শিক্ষার্থীরা। এ কর্মসূচির ফলে বিভাগের ২০২১-২২ সেশনের শিক্ষার্থীদের মিডটার্ম পরীক্ষা ৯টায় শুরু হওয়ার কথা থাকলেও প্রায় দেড় ঘণ্টা পরে শুরু হয়। পরে বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টরিয়াল টিমের বিচারের আশ্বাসে কর্মসূচি স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানায়, আমরা কিছুদিন আগে ছেলে শিক্ষার্থীরা ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র-জুনিয়রদের নিয়ে একটি ট্যুর আয়োজন করি নিজেরা। ডিপার্টমেন্টের কোনো সম্পৃক্ততা এতে ছিল না। ডিপার্টমেন্ট এর ব্যানারেও ট্যুরটা হয়নি। আমাদের এই আয়োজনে যারা ছিল তাদের সবাইকে 'সেক্সুয়াল হ্যারাজার' এবং মেয়েদেরকে 'একবারে জঙ্গল দেখিয়ে আনবে' বলেছে ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী নুজহাত মেহজাবিন। এর বিরুদ্ধে গত ১১ সেপ্টেম্বর লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরও চেয়ারম্যান কর্তৃক কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

তারা আরও বলেন, এ ছাড়াও বিভিন্ন সময় নুজহাত মেহজাবিন, মায়মুনা রহমান রিদিতসহ আরও কয়েকজন ছেলে শিক্ষার্থীদের সাথে এমন আচরণ করে। ১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী ইমরান গত চার বছর ধরে হয়রানির শিকার হয়ে আসতেছে। সে আমাদের সঙ্গে অংশগ্রহণ করতে চাইলে শিক্ষক তাকে কল দিয়ে বলে তাকে রিকমেন্ডেশন লেটার দেবে না।

আরও পড়ুন<<>> মতিঝিল আইডিয়ালের শিক্ষক প্রতিনিধি মালা বহিষ্কার

এ সময় শিক্ষার্থীরা 'সমতার ডিপার্টমেন্টে অসমতা চলবে না' শিক্ষকের সামনে হেনস্তা শিক্ষক কেন নীরব' বুলিংকারী, হেনস্তাকারীর বিচার চাই, বিচার চাই' বলে স্লোগান দেয়।

চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী শফিকুল ইসলাম বলেন, নুজহাত মেহজাবিন ছেলে শিক্ষার্থীদের সেক্সুয়াল হ্যারেজার বলেছে। আমরা ডিপার্টমেন্ট বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোনো বিচার পাইনি। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ শিক্ষার্থী উপদেষ্টা দ্বারা নির্যাতনের শিকার হচ্ছি কিন্তু ডিপার্টমেন্ট থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। এ ছাড়াও কতিপয় মেয়েদের দ্বারা মিথ্যা অভিযোগ করে আমাদের ফাঁসানো হচ্ছে।

সবুজ নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের আন্দোলনে মেয়ে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে চাচ্ছে কিন্তু শিক্ষকরা অংশগ্রহণ করতে দিচ্ছে না।

এ বিষয়ে সহযোগী প্রক্টর মুহাম্মদ বদরুল হাসান বলেন, শিক্ষার্থীরা বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) থেকে ডিপার্টমেন্টে তালা দিয়ে রেখেছে। আমরা তাদের অভিযোগ শুনে বিচারের আশ্বাস দিয়েছি। তারা আমাদের প্রতি আস্থা রেখে আন্দোলন স্থগিত করেছে। এখন পরীক্ষাসহ অন্যান্য শিক্ষাকার্যক্রম স্বাভাবিকভাবেই চলছে।

আপন দেশ/এবি

মন্তব্য করুন # খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, আপন দেশ ডটকম- এর দায়ভার নেবে না।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

শীর্ষ সংবাদ:

মিরপুরে পুলিশ-অটোরিকশা চালকদের সংঘর্ষ, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ভ্যাট বসলে মেট্রোরেলের সুনাম নষ্ট হবে: ওবায়দুল কাদের বান্দরবানের রুমায় সেনাবাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিনজন কেএনএ সদস্য নিহত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণদের উদ্যোক্তা হতে বললেন গুরুত্বপূর্ণ সফরে ঢাকায় আসছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং রাজধানীর আগারগাঁও ও মিরপুর ১০ নম্বরে অটোরিকশা চালকদের বিক্ষোভ, মেট্রো স্টেশনের প্রবেশপথে তালা পঞ্চম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করেছেন বাবর আলী ঢাকাসহ ১০ অঞ্চলের উপর দিয়ে ৬০ কিমি বেগে বজ্রবৃষ্টির শঙ্কা জো বাইডেনের ‘ড্রাগ টেস্ট’ করতে বললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প লিওনেল মেসির ইন্টার মায়ামি হারাল ডিসি ইউনাইটেডকে