Apan Desh | আপন দেশ

তাইওয়ানে রেকর্ড মাত্রার ভূমিকম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৩৭, ৩ এপ্রিল ২০২৪

তাইওয়ানে রেকর্ড মাত্রার ভূমিকম্প

ছবি : সংগৃহীত

তাইওয়ানের পূর্ব উপকূলে সাত দশমিক চার মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্পের পরে তাইওয়ান, ফিলিপাইন এবং জাপানেও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তাইওয়ানে গত দুই যুগের মধ্যে এটি ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প। 

জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) জানায়, জাপানের স্থানীয় সময় বুধবার (৩ এপ্রিল) সকাল ৯টার (বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টা) কিছু আগে তাইওয়ানে এই ভূমিকম্প আঘাত হানে। খবর আল-জাজিরা ও দ্য জাপান টাইমসের। 

নয় দশমিক আট ফুট উচ্চতার ঢেউয়ের সতর্কবার্তা জারি করে জেএমএ বলেছে, ওকিনাওয়া দ্বীপ, মিয়াকোজিমা দ্বীপ এবং ইয়ায়েমা দ্বীপের আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের অবিলম্বে সরে যেতে হবে। 

আবহাওয়া সংস্থা আরও বলেছে, সুনামির ঢেউ উপকূলের দিকে আসছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সকলে নিরাপদে সরে যান। ঢেউ বারবার আঘাত করতে পারে। পরবর্তী নির্দেশনার আগ পর্যন্ত সকলকে নিরাপদে সরিয়ে নিন। 

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল তাইওয়ানের হুয়ালিয়েন শহরের ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণে। ভূপৃষ্ঠের ৩৪ দশমিক আট কিলোমিটার গভীরে এর উৎপত্তি হয়েছে। 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, তাইওয়ানে শক্তিশালী এই ভূমিকম্পে কিছু ভবন কেঁপে উঠেছে এবং দ্বীপাঞ্চলটির পূর্ব অংশে ভূমিধস হয়েছে।

আরও পড়ুন <> সিরিয়ায় কনস্যুলেটে ইসরায়েলি হামলার জবাব দেবে ইরান

রাজধানী তাইপেইতে ভূমিকম্পের প্রায় ১৫ মিনিট পরে আফটারশক অনুভূত হয় এবং প্রায় ঘণ্টাব্যাপী থেমে থেমে আফটারশক অনুভূত হতে থাকে। তাইওয়ানের কর্তৃপক্ষ উপকূলীয় অঞ্চলে সুনামি সতর্কতা জারি করেছে, বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে।

ফিলিপাইনের সিসমোলজি এজেন্সি জানিয়েছে, উপকূলীয় অঞ্চলে উচ্চ সুনামির ঢেউ অনুভূত হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তাইওয়ানের ভূকম্পণ পর্যবেক্ষণ ও গবেষণা সংস্থা তাইপে সিসমোলজি সেন্টারের পরিচালক উ শিয়েন ফু বিবিসিকে বলেন, ‘পূর্ব উপকূলে সাগর তীর বা ডাঙা থেকে অল্প খানিক দূরত্বে, অর্থাৎ সাগরের অগভীর অংশে এই এপিসেন্টারের অবস্থান। এ কারণে তাইওয়ান এবং তার প্রতিবেশি দেশগুলোতে পূর্ণমাত্রার কম্পণ অনুভূত হয়েছে…গত ২৫ বছরে তাইওয়ানে যত ভূমিকম্প ঘটেছে, তার মধ্যে এটি সবচেয়ে বড়।

তাইওয়ানের টেলিভিশন চ্যানেল টিভিবিএস ও অন্যান্য স্থানীয় সংবাদমাধ্যম তাৎক্ষণিকভাবে কিছু ছবি ও ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে। ছবিগুলোতে দেখা যাচ্ছে ধসে ও হেলে পড়া অ্যাপার্টমেন্ট ভবন ও স্কুলগুলো থেকে লোকজন-শিক্ষার্থীদের সরানো হচ্ছে। বাড়িঘরের ধংসাবশেষের আঘাতে বেশ কয়েকটি যানবাহন ধ্বংস হওয়া এবং বাড়িঘর-দোকানপাটের আসবাব ও অন্যান্য জিনিসপত্রের ছড়ানো ছিটানো অবস্থার ফুটেজ প্রকাশ করেছে টিভিবিএস।

এর আগে ১৯৯৯ সালের সেপ্টেম্বরে তাইওয়ানে সাত দশমিক ছয় মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল। তাতে দুই হাজার ৪০০ মানুষের মৃত্যু হয়।

আপন দেশ/এমআর

মন্তব্য করুন # খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, আপন দেশ ডটকম- এর দায়ভার নেবে না।

শেয়ার করুনঃ

জনপ্রিয়